src='https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js'/> ছবি তোলার সময় ফোন মেমোরি ফুল দেখায় সমাধান কি?

ছবি তোলার সময় ফোন মেমোরি ফুল দেখায় সমাধান কি?

কোথাও ঘুরতে গিয়ে ফোনে ছবি তুলতে গেলেন। ছবি তোলার সময় ফোন স্টোরেজ ফুল দেখাচ্ছে। কিছু একটা ডিলিট করে,মেমোরি খালি করার জন্য বলছে। এই সমস্যায় আমরা অনেকেই পড়েছি। মাঝেমধ্যে আমরা অনেকেই হঠাৎ করে দেখি মোবাইল ফোনের মেমোরি ফুল দেখাচ্ছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যারা পুরাতন মডেলের স্যামসাং ব্রান্ডের ফোন ব্যাবহার করে,তাদের ক্ষেত্রে এমন হতে দেখেছি। কারন তখনকার সময়ে র‍্যাম ও রম কম ছিল। এখনকার যুগে এসেও অনেকের ফোনে এই সমস্যাটি দেখা দেয়। যাদের ফোনের র‍্যাম ২জিবি বা তার কম তাদের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ এই সমস্যা দেখা দেয়। এখন অনেকের প্রশ্ন, র‍্যাম কম আছে বলে কি, ফোন ব্যাবহার বন্ধ করে দিব? অবশ্যই না। আজকের আর্টকেলে এই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

ছবি তোলার সময় ফোন মেমোরি ফুল দেখায় সমাধান কি
ছবি তোলার সময় ফোন মেমোরি ফুল দেখায় সমাধান কি

এই সমস্যাটি মূলত হয়, যাদের ফোন মেমোরি স্পেস কম থাকে। মেমোরি স্পেস কম থাকলে ছবি তোলার সময় ফোন এমন সংকেত দেখায়। তখন তাৎক্ষণিক কিছু একটা গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও বা এপ্লিকেশন ডিলিট করে মেমোরি খালি করতে হয়। আপনাকে যাতে এমন বিড়ম্বনায় পড়তে না হয়, সেজন্য কিভাবে ফরমেট না দিয়েও ফোনের মেমোরি স্পেস বাড়াবেন জেনে নিন।

আপনি আপনার ফোনে যে এপ্স ব্যাবহার করেন, তার সবগুলা এপ্সই কি,আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যেমন কিছু এপ্স আছে আপনি ফুটবল বিশ্বকাপ খেলার লাইভ ভিডিও বা লাইভ স্কোর দেখার জন্য ডাউনলোড দিয়েছিলেন। এখনো আপনার মোবাইলে পড়ে আছে। আবার আপনি হয়তো কোন আত্বীয়ের বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। তখন সেই বাসার বাচ্চা ছেলেটি আপনার ফোন নিয়ে একটি গেমস ডাউনলোড করেছিল। সেই গেইমস এখনো আপনার ফোনে পড়ে আছে। এখন এইধরনের যত প্রকার এপ্স আছে সবগুলো ফোন থেকে আন-ইন্সটল করে ফেলুন।

অনেকেই ভাবেন, আমার ফোনে তো এক্সট্রা মেমোরিকার্ড লাগানো আছে। তবুও কেন ফুল দেখায়। আসলে আমাদের ফোনে এসডি কার্ড বা এক্সটারনাল মেমোরি কার্ডে কিছু কিছু এপ্স সাপোর্টেড না। আমাদের ফোনের প্রায় ৮০% এপ্লিকেশন শুধুমাত্র ফোন মেমোরির জন্য তৈরি করা। আপনি চাইলেই সেগুলাকে এক্সটারনাল মেমোরিতে নিতে পারবেন না।

এছাড়া আপনার ফোনে প্রয়োজনীয় যে এপ্লিকেশন আছে, সেগুলা আপনি যখন প্রথমদিন ডাউনলোড করেছিলেন,তখন ফোনের স্পেস নিয়েছিল ধরুন, ৬০এম্বি। সেই এপ্স ব্যাবহার করার ফলে আজকের দিনে এসে স্পেস নিবে কমপক্ষে ১৫০ এম্বি। কারন প্রতিটা এপ্স ব্যাবহারের ফলে নির্দিষ্ট পরিমান ক্যাশ ডাটা জমা হয়। যারকারনে দেখা যায়, ৫০ এম্বির এপ্লিকেশন একসময় ৩০০ এম্বি পর্যন্ত হয়ে যায়। এইজন্য যা করনীয়, তা হলো আপনার প্রয়োজনীয় এপ্সে যাবেন সেখানে গিয়ে এপ ডাটা অংশে দেখবেন ডাটা জমে আছে। তারপর সেখানে ক্লিয়ার ডাটা অংশে ক্লিক করে, ডাটা ক্লিয়ার করবেন। এভাবে প্রত্যেকটা এপ্সে ডাটা ক্লিয়ার করে দেখুন। আপনার ফোনের স্পেস অনেক বেড়ে যাবে।

ফেসবুক সহ কিছু সামাজিক যোগাযোগ এপ্স আছে যেগুলাতে লগ ইন করা লাগে। সেই লগইন করা এপ্সগুলাতে লগ আউট হয়ে যেতে পারে। সেগুলাতে পুনরায় লগইন করে নিবেন।

এছাড়া আপনি যদি ফোনে এক্সট্রা মেমোরি কার্ড ব্যাবহার করেন,তাহলে কয়েকটি এপ্সকে মেমোরিতে নিতে পারেন। সব এপ্সকে মেমোরিতে নেয়া সম্ভব নয়। যেগুলা সম্ভব সেগুলা নিয়ে নিন। তাতে আপনার ফোন ফাস্ট কাজ করবে।

আশাকরি আমাদের আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনার যে তথ্য জানার প্রয়োজন ছিল সেটি জানতে পেরেছেন। কোন জানার বা মন্তব্য থাকলে মন্তব্য করতে পারেন। স্মার্টফোন বিষয়ক নিত্যনৈমিত্তিক অনেকে অজানা তথ্য আমাদের এই সাইটে আপনি পাবেন। নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের Facebook Page লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। সাইটের নিচের অংশে আমাদের ফেইসবুক পেইজ দেয়া আছে। সেখানে স্মার্টফোন সম্পর্কিত নিয়মিত নিত্যনতুন আরো অজানা তথ্য জানতে পারবেন।

Previous Post Next Post