src='https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js'/> নতুন মোবাইল ফোনের যত্ন যেভাবে নিবেন

নতুন মোবাইল ফোনের যত্ন যেভাবে নিবেন

নতুন মোবাইল ফোন কেনার পরে সেটি কিভাবে যত্ন নিতে হবে সেটা অনেকেই জানিনা। নতুন ফোন কেনার পরে কিভাবে কি করবো,কিভাবে ব্যাবহার করলে দীর্ঘদিন ব্যাবহার করা যাবে, সেটাও আমরা অনেকে বুঝে উঠতে পারিনা। আজকের আর্টিকেলের বিষয়,নতুন ফোনের যত্ন যেভাবে নিবেন।

নতুন মোবাইল ফোনের যত্ন যেভাবে নিবেন
নতুন মোবাইল ফোনের যত্ন যেভাবে নিবেন

আপনি নতুন কোন ফোন কেনার আগে অবশ্যই নিশ্চিত হয়ে নিবেন সেই ফোনে গোরিলা গ্লাসের প্রোটেকশন আছে কিনা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ফোনে গোরিলা গ্লাসের প্রোটেকশন থাকেনা। যদি না থাকে, তাহলে ফোনের সাইজ অনুযায়ী দোকান থেকে গোরিলা গ্লাস বা টেম্পার্ড গ্লাস লাগিয়ে আনবেন। যে দোকান থেকে ফোন কিনবেন,তারাই সাধারণত ফ্রিতে গ্লাস প্রোটেকশন লাগিয়ে দিয়ে থাকে।

তারপর ফোনটিকে বাসায় আনার পরে কিছুক্ষন ব্যাবহার করুন। আগেকার দিনে একটা নিয়ম ছিল,নতুন ফোন কেনার সময় দোকানদার বলে দিতো যে,বাসায় নিয়ে প্রথমেই ৬/৮ঘন্টা ফোনটিকে চার্জে লাগিয়ে রাখবেন। এখনকার দিনে এসে ভিন্ন কথা বলা হয়। এখন ফোন কেনার সময় দেখা যায় ফোনে অন্তত ৫০% বা তার বেশি চার্জ থাকে। তাই দোকানদার বলে দেয় যে, ফোনটি বাসায় নিয়ে সবকিছু ঠিকঠাক করুন। ফেসবুক, জিমেইল সহ গুরুত্বপূর্ণ এপ্লিকেশন ইন্সটল ও লগিন দিন। তারপর একটাসময় যখন চার্জ ৩০% এর নিচে যাবে,তখন ফোনকে একটানা ১০০% হওয়া পর্যন্ত চার্জ দিন।

প্রকৃতপক্ষে এটাই আসল নিয়ম। একটি মোবাইল কোম্পানি যখন ফোন উৎপাদন করে। তখন সবকিছু ঠিকঠাক হলে,ফোনকে চার্জে লাগিয়ে চেক করে। সেক্ষেত্রে তারা অন্তত ৫০% বা তার বেশি চার্জ করে। তবে ১০০% করেনা। তাই আপনি নতুন ফোন বাসায় কিনে এনে, ৩০% থেকে ১০০% পর্যন্ত চার্জ দিতে পারলে,সেটি ব্যাটারির জন্য স্বাস্থ্যকর।

তারপর ফোনকে অন্তত ২-৩দিন পর আবার চার্জ দিবেন। নতুন ফোনের ক্ষেত্রে ব্যাটারি পারফরমেন্স দূর্দান্ত থাকে। সেক্ষেত্রে আপনি যদি গেমিং না করেন,তাহলে অনায়াসে দুইদিন চলে যাওয়ার কথা। তাই দুদিন পর যখন দেখবেন ব্যাটারি ৪০% বা তার নিচে নেমে এসেছে,তখন আপনি চার্জে লাগাবেন। চার্জে লাগালে সবসময় চেস্টা করবেন অন্তত ৯০% চার্জের আগে যাতে না খুলতে হয়।

নতুন ফোন মুছার জন্য পারফিউম টিসুৎ পেপার ব্যাবহার করাই শ্রেয়। যদিও অনেকে জামার কাপড় দিয়ে নতুন ফোনের ডিসপ্লে পরিস্কার করে। তবে এতেকরে একটাসময় ফোনের ডিসপ্লেতে দাগ পরে যেতে পারে।

নতুন ফোন কেনার পরে আমরা সবাই চাই,অন্তত দুইমাস যাতে এতে কোন দাগ না পড়ে। সেক্ষেত্রে নতুন অবস্থায় অবশ্যই ফোনের বক্সে থাকা বেক কাভার ব্যাবহার করতে পারেন। মোবাইলের বক্সে থাকা বেক কাভারটি ফোনের জন্য একদম পার্ফেক্ট। অনেকে আবার বক্সের কাভার রেখে দোকান থেকে কিনে ব্যাবহার করে। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই বক্সে ফ্রি দেয়া কাভার ব্যাবহার করুন।

প্রতি পনেরো দিন অন্তত অন্তর কাভার থেকে ফোনটি খুলে টিসুৎ পেপার দিয়ে ভালোভাবে মুছে নিন। যদি এই কাজটি না করেন,তাহলে কাভারের ভেতরে ময়লা ঢুকে,ফোনে দীর্ঘস্থায়ী দাগের সৃষ্টি হতে পারে। এভাবে নিয়মিত যত্ন নিলে আপনার ফোনটি নতুনের মতো পরিস্কার থাকবে। ভুলেও হ্যান্ড সেনিটাইজার দিয়ে ফোন পরিস্কার করতে যাবেন না। কারন বাজারে যে হ্যান্ড সেনিটাইজার আছে সেগুলা অতি নিন্মমানের। যদিও ফোনে গ্লাস প্রোটেকশন লাগানোর সময় স্প্রিট টাইপ কিছু দিয়ে পরিস্কার করা হয়। তবুও সেটা ফোনের জন্য উপযুক্ত কিন্তু বাজারের হ্যান্ড সেনিটাইজার ফোন পরিস্কারের উপযুক্ত নয়।

আশাকরি আমাদের আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনার যে তথ্য জানার প্রয়োজন ছিল সেটি জানতে পেরেছেন। কোন জানার বা মন্তব্য থাকলে মন্তব্য করতে পারেন। স্মার্টফোন বিষয়ক নিত্যনৈমিত্তিক অনেকে অজানা তথ্য আমাদের এই সাইটে আপনি পাবেন। নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের Facebook Page লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। সাইটের নিচের অংশে আমাদের ফেইসবুক পেইজ দেয়া আছে। সেখানে স্মার্টফোন সম্পর্কিত নিয়মিত নিত্যনতুন আরো অজানা তথ্য জানতে পারবেন।

Previous Post Next Post